নিজেকে শান্ত করতে মাত্র ১ মিনিট ব্যয় করুন

আমরা সকলেই উচ্চ চাপ, উদ্বেগ-প্ররোচিত পরিস্থিতিতে পড়েছি। জীবন কি কঠিন হতে পারে, জানেন? আপনার স্নায়ুগুলি আপনার সেরাটি দেওয়ার পরিবর্তে ত্রুটিযুক্ত প্রিন্টারে ঘুষি মারতে বা আপনার মাইক্রো ম্যানেজিং বসকে গালি দেয়ার মত কাজ করে ফেলতে পারে। এই অবস্থায় শুধু শ্বাস নিন। আরও সুনির্দিষ্টভাবে, অনুরণনমূলক শ্বাস প্রশ্বাসের চেষ্টা করুন।

সমীক্ষা

আপনি যদি কিছুটা বেশি কাজ করে থাকেন তবে অবশ্যই শিথিল হওয়ার জন্য গভীর শ্বাস নেওয়ার পরামর্শটি পেয়েছেন। আমরা প্রথমে স্বীকার করব যে শ্বাস-প্রশ্বাসে ফোকাস করা কোনও নতুন, যুগোপযোগী আবিষ্কার নয়। তবে জার্নাল অফ অল্টারনেটিভ অ্যান্ড কমপ্লিমেন্টারি মেডিসিনে প্রকাশিত মার্চ ২০১৭ সালের সমীক্ষা অনুসারে, বৃহত্তর হতাশাব্যঞ্জক ব্যাধি মোকাবেলায় শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সুসংহত বা অনুরণিত শ্বাস প্রশ্বাস নামক একটি প্রযুক্তি সত্যই কাজ করে। “আমরা একটি সংক্ষিপ্ত প্রোগ্রাম চিহ্নিত করতে চেয়েছিলাম যা দ্রুত লোককে দেওয়া যেতে পারে যা, তাদের পাঁচ বা দশ মিনিটের মধ্যে তাৎক্ষণিকভাবে উপশম হবে এবং সময়ের সাথে দীর্ঘমেয়াদী পরিবর্তন আসতে পারে,” গবেষণার লেখক প্যাট্রিসিয়া জারবার্গ, সহকারী ক্লিনিকাল অধ্যাপক নিউইয়র্ক মেডিকেল কলেজের মনোরোগ বিশেষজ্ঞ বলেছেন টনিক’কে।

ALSO READ:  শীতকালে শব্দ বহুদূর পর্যন্ত শোনা যায় কেন?

শ্বাস-প্রশ্বাস প্রকৃয়া

প্রতি মিনিটে পাঁচবার শ্বাস নিন এবং যতক্ষণ প্রয়োজন ততক্ষণ নিতেই থাকুন। এর অর্থ প্রতিটি ইনহেল ছয় সেকেন্ড চলবে। এটাই! আপনার শ্বাসকে কোমল করে রাখুন, কারণ এখানে লক্ষ্য হ’ল আপনার সহানুভূতিশীল স্নায়ুতন্ত্রের ভারসাম্য রক্ষা করা – প্যারাসিমপ্যাথেটিক স্নায়ুতন্ত্রের সাথে, যা আপনার হৃদস্পন্দনকে হ্রাস করে। সেকেন্ডে নজর রাখার জন্য আপনি জোরে জোরে গণনা করবেন না বা ভিজ্যুয়াল কিউ (একটি জ্বলজ্বলকারী আলো) ব্যবহার করবেন না বলেও সুপারিশ করা হয়, কারণ এটি আপনার সহানুভূতিশীল সিস্টেমের জন্য কিছুটা উত্তেজনাপূর্ণ হতে পারে।

উপকার

এই অতি সাধারণ শ্বাস প্রশ্বাস মহড়াটি গারবার্গ এবং তার স্বামী রিচার্ড ব্রাউন, কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ অফ ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনসের ক্লিনিকাল সাইকিয়াট্রির সহযোগী অধ্যাপক দ্বারা উদযাপিত হয়েছে। এই জুটি রোগীদের সবচেয়ে মারাত্মক মানসিক অবস্থায় সহায়তা করার জন্য এই কৌশলটিকে যথেষ্ট শক্তিশালী বলে বিবেচনা করেছেন। এমনকি গণহত্যা, যুদ্ধ, ভূমিকম্প, সুনামি এবং অন্যান্য গণ বিপর্যয় থেকে বেঁচে থাকার জন্য।

গবেষণা

গারবার্গ এবং ব্রাউনকে অন্তর্ভুক্ত করে একটি গবেষক দলের ২০১৭ সালের গবেষণায়, বড় ধরনের হতাশাব্যঞ্জক ব্যাধিযুক্ত ৩০ জন ব্যক্তিকে তিন মাস ধরে অনুরণনমূলক শ্বাস এবং আইয়েঙ্গার ইয়োগা (Iyengar yoga) দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এই সময়ের শেষে, অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে হতাশাজনক লক্ষণগুলি হ্রাস পেয়েছিল, যা একটি স্ট্যান্ডার্ড ডিপ্রেশন ইনভেন্টরি টেস্ট দ্বারা পরিমাপ করা হয়েছিল।

ALSO READ:  Kinemaster pro video editor free download (No Watermark)

“শ্বাস-প্রশ্বাস ক্রিয়া হ’ল একমাত্র স্বায়ত্তশাসিত কার্য যা আমরা স্বেচ্ছায় নিয়ন্ত্রণ করতে পারি,” গারবার্গ বলেছেন। এ কারণেই গবেষকরা বিশ্বাস করেন যে আপনার শ্বাসের ধরণ পরিবর্তন আপনার মস্তিষ্কের বার্তাগুলি সরিয়ে দিতে পারে এবং আপনার স্নায়ু থেকে উদ্বেগ বা হতাশাগ্রস্থ চিন্তাভাবনাগুলিকে শান্ত করতে পারে। পরের বার আপনি কর্মক্ষেত্রে যদি সত্যিই চাপ অনুভব করেন, তবে শ্বাস নিতে কেবল এক বা ছয় মিনিট সময় নিন।

ধন্যবাদ!

পোস্টটি বিরক্ত লাগলে অনুনাদিত শ্বাসপ্রশ্বাস চালু করুন, দেখবেন ভাল লাগছে। এরপর কমেন্ট, শেয়ার করে ফেলুন।

তথ্যসূত্রঃ
→Treatment of Major Depressive Disorder with Iyengar Yoga and Coherent Breathing: A Randomized Controlled Dosing Study
https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pmc/articles/PMC5359682/
→This Breathing Exercise Can Calm You Down in a Few Minutes
https://www.vice.com/en_us/article/kzxe83/this-breathing-exercise-can-calm-you-down-in-a-few-minutes
→Mass disasters and mind-body solutions: evidence and field insights
https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pubmed/22398351

ছবিঃ istockphoto.com