এশিয়ার সেরাদের তালিকায় বাংলাদেশের পরীমনি

অভিনেত্রী পরীমনি এশিয়ার সেরা ১০০ ডিজিটাল তারকার তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন। যেখানে আছেন অন্যান্য খ্যাতনামা ব্যক্তিরা।

ফোর্বসের তালিকা

২০২০ সালে এশিয়ার ডিজিটাল তারকাদের তালিকা প্রকাশ করেছে অ্যামেরিকার প্রখ্যাত বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস৷ সেখানে বলিউডের খ্যাতনামা অনেক তারকা ও সংগীত শিল্পীর পাশাপাশি আছে বাংলাদেশি অভিনেত্রী পরীমনির নাম৷ তালিকার শীর্ষে আছে ‘ব্ল্যাক পিঙ্ক’৷

র‍্যাংকিং

প্রথম স্থানঃ ‘ব্ল্যাকপিঙ্ক’
দ্বিতীয় স্থানঃ চীনা কণ্ঠশিল্পী ও অভিনেতা জ্যাকসন ই
তৃতীয় স্থানঃ থাইল্যান্ডের অভিনেত্রী দেভিকা হর্নে
চতুর্থ স্থানঃ অমিতাভ বচ্চন

ঢালিউড তারকাদের মধ্যে শুধু পরীমনি আছেন।

বলিউড তারকাদের মধ্যে এ তালিকায় রয়েছেন অক্ষয় কুমার, ক্যাটরিনা কাইফ, আনুশকা শর্মা, শ্রেয়া ঘোষাল, শহীদ কাপুর, রণবীর সিং, হৃতিক রোশন, মাধুরী দীক্ষিত, আলিয়া ভাট, জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ, নেহা কক্কর।

এছাড়া এই লিস্টে আরও রয়েছে পাকিস্তানী অভিনেত্রী মাহিরা খান, গায়ক আতিফ আসলাম এবং অস্ট্রেলীয় অভিনেতা ক্রিস হেমসওর্থ, হংকংয়ের অভিনেতা ডনি ইয়েনের নাম।

কাদের জন্য

যেসব তারকাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে শক্তিশালী উপস্থিতি এবং করোনা সংকটে ভক্ত ও অনুসারীদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করছেন তাদের জন্যই মুলত এই তালিকা করা হয়।

ALSO READ:  পদ্মা সেতুর সর্বশেষ তথ্য

পরীমনির সিনেমা

মুক্তির আগেই ২৩টি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন পরীমনি৷ গণমাধ্যমে তাকে নিয়ে শুরু হয়েছিল আলোচনা-সমালোচনা৷ ২০১৫ সালে ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ চলচ্চিত্রে  অভিনয়ের মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষেক হয় তার৷

কর্মজীবন

শুরুটা হয় মডেলিং দিয়ে। পরবর্তিতে টিভি নাটকেও অভিনয় করেছেন তিনি।

পরীমনির ব্যক্তিগত জীবন

পরীমনির জন্মদিন ২৪শে অক্টোবর ১৯৯২, সাতক্ষীরায়৷ ছোটবেলায় বাবা-মাকে হারানো পরীমনি বড় হয়েছেন নানার কাছে৷ সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে বাংলা বিভাগের ছাত্রী ছিলেন৷ তবে পরীক্ষা দেননি৷

তথ্যসূত্রঃ
DW
Prothom Alo
Somoy News

ছবিঃ Small Biography